Health benefits of Amla 2021-আমলার স্বাস্থ্য উপকারিতা

0
127

আমলার স্বাস্থ্য উপকারিতা (Health Benefits Of Amla) জানতে হলে, প্রথমত (Firstly) এর পরিচয় খুঁজতে হবে।

ভারতবর্ষের জঙ্গলে ও বাগানে সর্বত্র আমলকি পাওয়া যায়। এই গাছটি সমুদ্র উপকূল থেকে উত্তরে ৪৫০০ ফুট উচ্চতা পর্যন্ত পাওয়া যায়।

দ্বিতীয়ত (Secondly) বাগিচার উৎপন্ন আমলকি একটু বড় ধরণের হয়, তেমনি (Likewise) জঙ্গলের আমলকি ছোট হয়।

অন্য দিকে (On The Other Hand) আমলকি গাছের পাতা তেতুলের পাতার মতো হয়ে থাকে,

কিন্তু (But) এর পাতা গুলি একটু বড় ধরণের হয় এইজন্য একে শতপত্র বলা হয়।

আমলার স্বাস্থ্য উপকারিতায় (Health Benefits Of Amla) একটি সর্ব শ্রেষ্ঠ রসায়ন, এটি সেবন করলে মানুষের কাছে বার্ধক্য আসতে পারে না।

তাই ( So) আমলকি কে আয়ুর্বেদিক এর মতে অমৃত ফল , ধাত্রীফল বা আমলা (Amla) ফল বলা হয়।

আমলা বৃক্ষ, মধ্যম আকারের ২০ থেকে ২৫ ফুট উঁচু হয়ে থাকে। অন্য দিকে (On The Other Hand)

এই গাছের পুষ্প দণ্ড লম্বা হয়,যাহাতে ছোট ছোট হলুদ রঙের ফুল গুচ্ছ ভাবে প্রস্ফুটিত হয়।

এর ফল গোল আকারের হয়, এছাড়াও (In Addition) ফলের উপর ৬ টি শিরা থাকে, ফলের ভিতর ৬ কোণা যুক্ত

বীজ হয়ে থাকে। এপ্রিল -মে মাসে এই গাছে ফুল ফোটা শুরু হয়, তারপর (After That) অক্টোবরমাস থেকে

এই গাছের ফল পাওয়া যায়।

আমলকির স্বাস্থ্য উপকারিতা রাসায়নিক সংগঠন (Health Benefits Of Amla Chemical Organization)

আমলা (Health Benefits Of Amla) ফলে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন “সি” থাকে,

এবং এতে কামলা লেবু রসের ২০ গুন অধিক ভিটামিন “সি” পাওয়া যায়।

আমলোকিতে (Amla) গৌলিক অ্যাসিড,টনিক অ্যাসিড,চিনি,অ্যালবামিন,সেলুলোজ ও ক্যালসিয়াম বিদ্যমান থাকে।

এছাড়াও (In Addition) আমলায়, জলের মাত্রা ৮১.২ মিলিগ্রাম, প্রোটিন ০.৫ মিলিগ্রাম, ফ্যাট ০.১ মিলিগ্রাম, ফস্ফরাস ০.০২ মিলিগ্রাম,

ক্যালসিয়াম ০.০৫ মিলিগ্রাম, লোহা ১.২ মিলিগ্রাম, পাওয়া যায়।

অন্য দিকে (On The Other Hand) আমলা (Amla) বীজে বাদামী রং এর এক স্থির তেল (১৬ %) বের হয়।

আমলকি (Health Benefits Of Amla) রিসিভার, ইউরিন, রক্ত শোধক ও রুচি কর হয় বলে, ডায়রিয়া (Diarrhea), চর্মরোগ, দাহ,

কমলা,অম্লতা(Acidity), পান্ডু, রক্তের কামড়, রক্তের ব্যাধি (Blood Disorders), বদহজম (Indigestion), কাশি ইত্যাদি রোগ ঠিক হয়।

তারপর (After That) চোখের দৃষ্টি ভালো করে, বল বীর্য দৃঢ় করে, এবং দীর্ঘায়ু (Longevity) হয়ে থাকে।

নেত্র রোগে আমলকির উপচার (Amalki Treatment For Eye Diseases)

৭ গ্রাম আমলকি ছোট ছোট টুকরো করে ঠান্ডা জলে ভিজিয়ে রাখুন, ২ থেকে ৩ ঘন্টা পর একটি পাত্রে নিঙড়ে নিন,

তারপর (After That) নিঙড়ানো জলে আরো ৭ গ্রাম আমলকি ভিজিয়ে রাখুন, এবং ২ থেকে ৩ ঘন্টা পর, আবার

নিঙড়ে নিন, একইভাবে (Similarly) ৩ থেকে ৪ বার, এই রসটি তৈরী করুন। এই জল বিন্দু বিন্দু চোখে ব্যবহার করুন।

নিশ্চয়ই (Certainly) এই আমলা (Health Benefits Of Amla) থেকে চোখের উপকার পাবেন।

ধাত্রী (আমলা/Amla ) রসের সঙ্গে সজিনা পাতার রস ৪ গ্রাম তথা সন্ধব লবন ২৫০ মিলিগ্রাম

এক সঙ্গে মিশিয়ে চোখ ধুইলে নতুন অভিসন্দ নষ্ট হয়ে যায়।

গাছে থাকা অবস্থায় আমলা কে ছিদ্র করে দিলে, যে রস বের হয়, সেই রস চোখের বাইরে চার পশে প্রলেপ লাগালে,

চোখের ভিতর সাদা অংশের যাবতীয় সমস্যা দূর হয়ে যায়।

অন্য দিকে (On The Other Hand) আমলার (Health Benefits Of Amla) আরো উপকারিতা জানতে আপনারা ব্যবহার করুন

২০ থেকে ৫০ গ্রাম আমলকি, ছোট ছোট টুকরো করে ২ ঘন্টা পর্যন্ত আধা কিলোগ্রাম জলে ফুটিয়ে, ঠান্ডা হলে ছেকে নিন,

তারপর (After That) দিনে ৩ থেকে ৪ বার চোখ ধুতে থাকুন ফলস্বরূপ ( As A Result) নেত্র রোগে বহু উপকৃত হবেন।

বিভিন্ন রোগে আমলকির স্বাস্থ্য উপকারিতা (Health Benefits Of Amla In Various Diseases)

অম্লতা (Acidity):- ১ থেকে ২ টি আমলা মিশ্রীর সাথে, অথবা ২৫ গ্রাম আমলকির রসের সাথে,

সমভাগ মধু মিশিয়ে সকালে ও সন্ধ্যায় সেবন করলে অম্লতা দূর হয়।

দ্বিতীয়ত (Secondly) আমলকির ১০ গ্রাম বীজ রাত ভর জলে ভিজিয়ে রেখে, পরের দিন সকালে সামান্য-

গরুর দুধের সাথে পিশাই করে,২৫০ গ্রাম গরুর দুধের সাথে সেবন করলে অধিক অম্লতায় লাভ হয়।

  • রক্ত পিত্ত (Blood Bile) :-রক্ত পিত্ত হলে পর, ১০ থেকে ২০ মিলিলিটার আমলার রসের সাথে ২ গ্রাম হলুদ এবং

এক চামচ মধু মিশিয়ে দিনে তিন বার সেবন করলে লাভ হয়।

পিত্ত জ্বর (Bile Fever) :-পাকা আমলকির রস কড়াইতে দিয়ে জ্বালিয়ে গাঢ় করে শুখাতে হবে, তারপর (After That)

এটিকে চূর্ণ করে ২ থেকে ৫ গ্রাম মাত্রায় প্রতিদিন দুইবার সেবন করলে, অধিক পিপাসা এবং

পিত্ত জ্বর (Bile Fever) ঠিক হয়।

কমলা রোগে (Kamala Disease):- ১২৫ থেকে ২৫০ মিলিগ্রাম লোহা ভস্মের সাথে ১ থেকে ২ টি আমলকি সেবন করলে,

কমলা রোগ, পান্ডু ও রক্তাল্পতা রোগ ঠিক হয়।

চুলের জন্য (For Hair):- শুকনো আমলকি ৩০ গ্রাম, বহেরা ১০ গ্রাম, আমের আঠি ৫০ গ্রাম, লোহা চূর্ণ ১০ গ্রাম,

একসঙ্গে মিশিয়ে কড়াইতে রাত ভর ভিজিয়ে রাখতে হবে। তারপর (After That) প্রতিদিন চুলে লেপন করলে,

অল্প বয়সের পাকা চুল কিছু দিনের মধ্যে কালো হয়ে যায়।

দ্বিতীয়ত (Secondly) আমলা, রিঠে ও শিকাকাই এই তিনটি একসাথে মিশিয়ে মাথায় লাগালে চুল মুলায়ম, ঘন ও লম্বা হয়।

Benefits Of Amla In Youth যৌবনে আমলকির উপকারিতা

যৌবনে আমলকির উপকারিতা (Benefits Of Amla In Youth) পেতে হলে, আমলার মৌসুমে নিত্য সকালে ব্যাম,

এবং ভ্রমণ করার পর দুটি পাকা পুষ্ট আমলকি চিবিয়ে চিবিয়ে খেতে হবে।

কিন্তু (But) যদি এই ভাবে কাঁচা আমলকি না খেতে পারা যায় তা হলে, এর রস দুই চামচ,

এবং দুই চামচ মধু মিশিয়ে পান করা যেতে পারে।

অন্য দিকে (On The Other Hand) যদি আমলকির Season না থাকে, তখন শুকনো আমলকি হামান্ দিস্তায় পিশাই করে,

চালনি বা কাপড়ে চেলে নিয়ে, এই চুর্ণ ৩ গ্রাম মাত্রায় ( ১ চামচ ) রাত্রে শোয়ার সময় অন্তিম বস্তু হিসাবে,

মধু মিশিয়ে অথবা জলের সঙ্গে সেবন করা যেতে পারে। যৌবনে আমলকির উপকারিতায় (Benefits Of Amla In Youth)

এই ক্ষেত্রে (For Instance), কোনও ব্যক্তি তিন থেকে চার মাস প্রতিদিন আমলা ব্যবহার করে, নিজের শরীর কে পরিবর্তন করতে পারে।

আমলকি (Benefits Of Amla In Youth) নিরন্তর প্রতিদিন সেবন করলে, যৌবনে পাচন শক্তি বাড়ে এবং খিদেও বেড়ে যায়,

গভীর নিদ্রা আসতে শুরু করে, মাথা যন্ত্রনা ঠিক হয়ে যায়, মানসিক এবং পুরুষত্ব শক্তি বাড়ে এছাড়াও (In Addition) দাঁত

মজবুত হয়, মাথার চুল কালো ও চমকদার হয়ে যায়, অন্য দিকে (On The Other Hand) সুন্দর্য, তেজস্বীতায় বৃদ্ধি হয়।

অতএব ( Therefore) মানুষ বৃদ্ধ বয়সেও যুবক থেকে যায়। আমলায় রোগ প্রতি রোধক গুণ থাকার কারণে সব সময়

রোগ থেকে রক্ষা করে, আর মানুষ সদৈব নিরোগ থেকে লম্বা আয়ু প্রাপ্ত করে থাকে।

যৌবনে উচ্চরক্তচাপে আমলকির উপকারিতা (Benefits Of Amla In Hypertension In Youth)

আমলকি ব্যবহার শুরু করলে সাথে সাথে সাত্ত্বিক ভোজনের বিশেষ প্রয়োজন।

আমলকি একটি উচ্চ প্রকৃতির রসায়ন। প্রথমত (Firstly) আমলা রক্ত থেকে ক্ষতি কারক ও বিষাক্ত পদার্থ বের করে,

বৃদ্ধ মানুষকে পুনরায় যুবক বানাতে সক্ষম। আমলকি নিয়মিত সেবন করলে রক্তনালী গুলি নমনীয় থাকে।

ফলস্বরূপ ( As A Result) অভ্যন্তরের কঠোরতা দূর করে, রক্তের প্রচলন ভালভাবে দ্রবীভূত হতে শুরু করে।

রক্তনালী গুলি নমনীয় থাকার কারণে মানুষের না হার্ড ফেল হয়, না উচ্চ রক্ত চাপ রোগ হয়।

নিরন্তর সেবন করলে যৌবনে আমলকির উপকারে (Benefits Of Amla In Youth) রস, রক্ত, মাংস, চর্বি, অস্থি, মজ্জা এবং শুক্র,

এই সকল ধাতু থেকে মৃত পরমাণু বেরিয়ে যায়। আরও (Further) শরীরে তাদের স্থানে নতুন সবল পরমাণু প্রবেশ করে থাকে।

বৃদ্ধ বয়সে রক্তনালী গুলি নমনীয় থাকে, মুখের সংকুচিত দুর হয়ে যায়, ফলস্বরূপ ( As A Result) মানুষ বৃদ্ধ অবস্থাও নবযুবকের

মতো ফুর্তিলা এবং শক্তিশালী হয়ে থাকে।

সহায়ক উপচার, আরোগ্য দীর্ঘ জীবন (Helpful Treatment, Healing Long Life)

দিনের বেলায় বাম নাসিকা দিয়ে আর রাত্রি বেলায় ডান নাসিকা দিয়ে শ্বাস প্রশ্বাস গ্রহণ করার অভ্যাস করিলে,

মানুষ সারা জীবন যুবক থেকে যায়। প্রথমত (Firstly) রাত্রি বেলায় বাম কাথি শয়ন করা প্রয়োজন,

যার ফলে দক্ষিণ নাসিকা দিয়ে শ্বাস প্রশ্বাস গ্রহণ করা যায়। দ্বিতীয়ত (Secondly) দিনের বেলায় আরাম করা-

বা বিশ্রাম করার সময়, দক্ষিণ করবট শয়ন করলে, বাম নাসিকা দিয়ে শ্বাস গ্রহণ করা যায়।

এছাড়াও (In Addition) বৃদ্ধ অবস্থা কে দুরে রেখে যৌবন কে স্থায়ী করার জন্য, গাছ পাকা পেঁপে নিয়মিত সেবন করা উচিত।

পেঁপে যৌবনের টনিক(Benefits Of Amla In Youth), এর রীতিমত লাভ পেতে, প্রতিদিন সকালে খালি পেটে, পেঁপে

প্রাতঃরাশ হিসাবে গ্রহণ করা প্রয়োজন। যে ব্যক্তি নিয়মিত ভাবে পেঁপে খেতে থাকে তার, যক্ষ্মা, হাঁপানি, চোখের রোগ,

বদহজম, রক্তাল্পতা, আদি রোগ হয় না। এটি অন্ত্রের পরিষ্কার করার জন্য বেজোড়, আর পাচনতন্ত্রের রোগ দুর করার উত্তম ফল।

What Is Nutritious Food?>>>

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here